629)(Story-30)Duty of patriotism. (দেশপ্রেমের দায়িত্ব।)-Written by Junayed Ashrafur Rahman ✒


Junayed Ashrafur Rahman2022/09/04 07:03
Follow
629)(Story-30)Duty of patriotism. (দেশপ্রেমের দায়িত্ব।)-Written by Junayed Ashrafur Rahman ✒

629 https://v.gd/MyWritingsFrom601 )(Story-30)Duty of patriotism. (দেশপ্রেমের দায়িত্ব।) - Written by https://v.gd/JunayedAshrafurRahman ✒



"After thinking a lot, the boy realized that patriotism is the real thing."


#Story #Fantasy #Patriotism #Wisdom


A patriot is a true citizen of the country. So he went to meet another nationally certified patriot to become a patriot.


Meeting the certified patriot, the boy said, "Sir, I want to be a true patriot. So I have come to you for guidance, so that I can become a true patriot."


The certified patriot said, "I am very happy that you want to be a true patriot. To be a true patriot in a warring country does not require any qualifications. But in a non-warring country, patriotism has to be asserted."


The boy was a little worried and said, "How can I show patriotism like a place?"


The certified patriot said, "Remember, you have the spirit of patriotism in you. But you must express that spirit if you want to be recognized as a patriot."


The boy said, "I want to be a true patriot. I don't want to be recognized as a patriot."


Hearing this, the certified patriot got a bit annoyed and said, "Hey boy, if you don't need the recognition of a patriot, then what is the need to be a patriot? Is there any patriot in the world without a certificate? So where is your problem?"


The boy said, "Yes sir, I understand, besides being a patriot, a patriot also needs recognition and a certificate."


The certified patriot said, "If you do not give proper expression to the spirit of patriotism within you, then your spirit of patriotism will not succeed. There is honey in the flower, but if the honey is not gathered by the bees and kept in the hive, then the honey falls with the flower.Likewise, if you do not express your patriotism in the right place, your patriotism will be limited within you. As a result, you will not be recognized as a patriot."


The boy said, "Then how will I assert my patriotism?"


The certified patriot said, "You will assert your patriotism on various issues of national level. But it should not be done in the playground of backward village near your house. Rather, it should be done in front of a big park in the capital city or in the middle of a multi-purpose road. Then the news of your patriotism will spread far and wide. And you will be able to assert your patriotism."


The boy said, "Then can I gain recognition as a patriot by pretending like this?"


The certified patriot said, "You can, but you will not achieve the recognition of a great patriot."


The boy said, "Then what else to do?"


"You must qualify," said the patriot.


The boy said, "What kind of qualification should be acquired?"


The patriot said, "Of course, you have to be educated and own money. Then you will be recognized as a great patriot. Yes, many poor and uneducated people are also recognized as great patriots. But not a living poor uneducated person, but a dead poor uneducated person is a great patriot.Living poor uneducated people are generally not recognized as great patriots."


The boy then said, "What else to do?"


"And you must take responsibility for your patriotism," said the certified patriot.


The boy said, "What is the duty of patriotism?"


The patriot said, "The duty of patriotism is to maintain patriotism on your own responsibility. If you do good or bad, you have to take responsibility for it. No one else will take it. If you quarrel with someone or fight with someone while doing patriotic work, then you have to take responsibility for that fight." No one else will come and take responsibility for your fights or quarrels. This is the meaning of patriotism. And while doing patriotism, no one will see whether you have lit the red light of your life or whether you have played the twelve of your career. No one will see if you have given or if your help-property has been damaged or if you have not eaten. But still every citizen must have his patriotism.


"And so you have to establish yourself and do patriotic things. And of course you have to show your patriotism appropriately."


The boy said, "Then can I establish myself as a true patriot?"


The certified patriot said, "Of course you can. But you will never engage in patriotism competition in keeping with any government employee. Because the government gives full support to what a government employee does for the sake of patriotism. But no matter how much patriotism you do on your own, you will never get help from the government like a government employee. So understand and engage in patriotism."


The boy said, "So what advice would you give me?"


The certified patriot said, "You first establish yourself. Then assert your patriotism. Remember, there is no war going on in the country now. So to assert yourself as a patriot in this situation, you must first study and establish yourself."


With this advice, the boy went to his home. (The end)©️All Right Reserved by Junayed Ashrafur Rahman


24°33'58.6"N 90°41'30.4"E


My home Location ✒ https://urlz.fr/j12V But I don't live here. Rented out to other people.


Nandail Municipality, Mymensingh, Bangladesh.


Junayedmn1@gmail.com


+8801611112262


⌨️📱 My writing in accordance with the subject (বিষয় অনুযায়ী আমার লেখা।) ✒ https://v.gd/SubjectsOfJunayedWritings


⌨️ My writing according to the serial (সিরিয়াল অনুযায়ী আমার লেখা।) ✒ https://v.gd/SerialOfJunayedWritings



"অনেক ভেবে চিন্তে ছেলেটা বুঝতে পারল, দেশপ্রেমই হচ্ছে আসল ব্যাপার।"


একজন দেশপ্রেমিকই হচ্ছে দেশের প্রকৃত নাগরিক। তাই সে দেশ প্রেমিক হওয়ার জন্য আরেকজন জাতীয় সনদপ্রাপ্ত দেশপ্রেমিকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেল।


সনদপ্রাপ্ত দেশপ্রেমিকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ছেলেটা বলল,"স্যার, আমি একজন প্রকৃত দেশপ্রেমিক হতে চাই। তাই আমি আপনার কাছে নির্দেশনা পেতে এসেছি, যাতে আমি একজন সাচ্চা দেশপ্রেমিক হতে পারি।"


সনদপ্রাপ্ত দেশপ্রেমিক বললেন,"আমি অত্যন্ত খুশি হয়েছি যে, তুমি একজন সাচ্চা দেশপ্রেমিক হতে চাও।যুদ্ধরত দেশে সাচ্চা দেশপ্রেমিক হতে হলে তেমন কোনো যোগ্যতার প্রয়োজন নাই। কিন্তু যুদ্ধহীন দেশে দেশপ্রেমটা জায়গা মতো জাহির করতে হয়।"


ছেলেটা কিছুটা চিন্তিত হয়ে বলল,"জায়গা মতো দেশপ্রেম কীভাবে জাহির করব?"


সনদপ্রাপ্ত দেশপ্রেমিক বললেন,"মনে কর, তোমার মধ্যে দেশপ্রেমের চেতনা আছে ভালোভাবেই। তোমার মধ্যে দেশপ্রেমের চেতনা আছে। কিন্তু তোমাকে সেই চেতনা প্রকাশ করতেই হবে, যদি তুমি দেশপ্রেমিক হিসেবে স্বীকৃতি পেতে চাও।"


ছেলেটা বলল,"আমি তো সাচ্চা দেশপ্রেমিক হতে চাই। দেশপ্রেমিকের স্বীকৃতি তো চাচ্ছি না।"


এ কথা শুনে সনদপ্তর দেশপ্রেমিক কিছুটা বিরক্ত হয়ে বললেন,"আরে মিয়া, যদি দেশপ্রেমিকের স্বীকৃতি তোমার দরকার না থাকে, তাহলে দেশপ্রেমিক হয়ে দরকার কী? দুনিয়ার কোন দেশপ্রেমিক সনদ ছাড়া আছে? তো তোমার সমস্যা কোথায়?"


ছেলেটা বলল,"জ্বি স্যার, আমি বুঝতে পেরেছি, দেশপ্রেমিক হওয়ার পাশাপাশি দেশপ্রেমিকের স্বীকৃতি ও সনদেরও দরকার আছে।"


সনদপ্রাপ্ত দেশপ্রেমিক বলতে লাগলেন,"তোমার মধ্যে থাকা দেশপ্রেমের চেতনা তুমি যদি জায়গা মতো জাহির করতে না পারো, তাহলে তোমার দেশপ্রেমের চেতনা সফল হবে না। ফুলের মধ্যে মধু থাকে, কিন্তু সেই মধু যদি মৌমাছি সংগ্রহ করে মৌচাকে না রাখে, তাহলে সেই মধু ফুলের সঙ্গে ঝরে যায়। তেমনি তোমার মধ্যে থাকা দেশপ্রেম জায়গায় মতো জাহির করতে না পারলে তোমার দেশপ্রেমের চেতনা তোমার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে। ফলে তুমি দেশপ্রেমিকের স্বীকৃতি পাবে না।"


ছেলেটা বলল,"তাহলে আমি আমার দেশপ্রেমের চেতনা কীভাবে জাহির করব?"


সনদপ্রাপ্ত দেশপ্রেমিক বললেন,"তোমার দেশপ্রেমের চেতনা তুমি জাতীয় পর্যায়ের বিভিন্ন ইস্যুকে কেন্দ্র করে জাহির করবে। তবে সেটা তোমাদের বাড়ির পাশের অজপাড়া গাঁয়ের খেলার মাঠে করলে হবে না। বরং সেটা করতে হবে রাজধানী শহরের কোন বড় পার্কের সামনে অথবা কোন বহুমুখী রাস্তার মাঝে। তাহলে তোমার দেশপ্রেমের খবর চতুর্দিকে ছড়িয়ে পড়বে আর তুমি এভাবেই তোমার দেশপ্রেম জাহির করতে পারবে।"


ছেলেটা বলল,"তাহলে কি আমি এভাবে চেতনা জাহির করে দেশপ্রেমিকের স্বীকৃতি অর্জন করতে পারব?"


সনদপ্রাপ্ত দেশপ্রেমিক বললেন,"পারবে, তবে বড় রকমের দেশপ্রেমিকের স্বীকৃতি অর্জন করতে পারবে না।"


ছেলেটা বলল,"তাহলে আর কী করতে হবে?"


দেশপ্রেমিক বললেন,"তোমাকে যোগ্যতা অর্জন করতে হবে।"


ছেলেটা বলল,"কী রকম যোগ্যতা অর্জন করতে হবে?"


দেশপ্রেমিক বললেন,"অবশ্যই তোমাকে শিক্ষিত হতে হবে এবং টাকা পয়সার মালিক হতে হবে। তাহলেই বড় ধরনের দেশপ্রেমিকের স্বীকৃতি পাবে। হ্যাঁ অনেক গরিব ও অশিক্ষিত মানুষও বড় ধরনের দেশপ্রেমিকের স্বীকৃতি পান। তবে জীবিত গরিব অশিক্ষিত ব্যক্তি না, বরং মৃত গরিব অশিক্ষিত ব্যক্তিকে বড় ধরনের দেশপ্রেমিকের স্বীকৃতি দেওয়া হয়। জীবিত গরিব অশিক্ষিত ব্যক্তিদেরকে সাধারণত বড় ধরনের দেশপ্রেমিকের স্বীকৃতি দেওয়া হয় না।"


ছেলেটা তখন বলল," আর কী করতে হবে?"


সনদপ্রাপ্ত দেশপ্রেমিক বললেন," আর তোমার দেশপ্রেমের দায়িত্ব তোমাকে নিতে হবে।"


ছেলেটা বলল,"দেশপ্রেমের দায়িত্ব কী জিনিস?"


দেশপ্রেমিক বললেন,"দেশপ্রেমের দায়িত্ব মানে নিজের দায়িত্বে দেশপ্রেম বজায় রাখা। ভালো মন্দ করলে এর দায় নিজেকে নিতে হবে। অন্য কেউ নেবে না। দেশপ্রেমের কাজ করতে গিয়ে তুমি যদি কারোর সঙ্গে ঝগড়া কর অথবা কারোর সঙ্গে মারামারি কর, তাহলে সেই মারামারির দায়ভারও তোমাকে নিতে হবে। অন্য কেউ এসে তোমার সেই মারামারি অথবা ঝগড়ার দায় নেবে না। এটাই দেশপ্রেমের মর্মার্থ।আর দেশপ্রেমের কাজ করতে গিয়ে তুমি তোমার জীবনের লাল বাত্তি জ্বালিয়েছো কি না অথবা তোমার ক্যারিয়ারের বারোটা বাজিয়েছো কি না, সেটাও কেউ দেখবে না। দেশপ্রেমের কাজ করতে গিয়ে তুমি লেখাপড়া বাদ দিয়েছো কি না অথবা তোমার সহায়-সম্পত্তির ক্ষতি হয়েছে কি না অথবা তুমি না খেয়ে আছো কি না সেটাও কেউ দেখবে না।কিন্তু তা সত্ত্বেও প্রত্যেক নাগরিকের মধ্যে নিজের দেশপ্রেম থাকতেই হবে।


"আর তাই তোমার নিজেকেও প্রতিষ্ঠিত করতে হবে এবং দেশপ্রেমের কাজও করতে হবে। এবং অবশ্যই জায়গা মতো তোমার দেশপ্রেম প্রকাশ করতে হবে।"


ছেলেটা বলল,"তাহলেই কি আমি সাচ্চা দেশপ্রেমিক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারব?"


সনদপ্রাপ্ত দেশপ্রেমিক বললেন,"অবশ্যই পারবে। কিন্তু কোন সরকারি চাকরিজীবীর সঙ্গে তাল মিলিয়ে দেশপ্রেমের প্রতিযোগিতায় কখনই লিপ্ত হবে না।কেননা সরকারি চাকরিজীবী চাকরির খাতিরে দেশপ্রেমে যে করে, সেটার সম্পূর্ণ সাহায্য সহযোগিতা সরকার করে। কিন্তু তুমি নিজে থেকে দেশপ্রেমের যত কাজই কর না কেন, সরকারি চাকরিজীবীর মতো সাহায্য সহযোগিতা কখনোই সরকারের কাছ থেকে পাবে না। তাই বুঝে শুনে দেশপ্রেমের কাজে জড়িত হবে।"


ছেলেটা বলল,"তাহলে আমাকে আপনি কোন উপদেশ দেবেন?"


সনদপ্রাপ্ত দেশপ্রেমিক বললেন,"তুমি আগে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত কর। এরপর দেশপ্রেম জাহির কর। মনে রাখবে, দেশে এখন যুদ্ধ চলছে না। তাই এই পরিস্থিতিতে নিজেকে দেশপ্রেমিক হিসেবে জাহির করতে হলে অবশ্যই তোমাকে আগে লেখাপড়া করতে হবে এবং প্রতিষ্ঠিত হতে হবে।"


এই উপদেশ নিয়ে ছেলেটা নিজের বাড়িতে চলে এলো।(সমাপ্ত)©️All Right Reserved by Junayed Ashrafur Rahman


24°33'58.6"N 90°41'30.4"E


My home Location ✒ https://urlz.fr/j12V But I don't live here. Rented out to other people.


Nandail Municipality, Mymensingh, Bangladesh.


Junayedmn1@gmail.com


+8801611112262


⌨️📱 My writing in accordance with the subject (বিষয় অনুযায়ী আমার লেখা।) ✒ https://v.gd/SubjectsOfJunayedWritings


⌨️ My writing according to the serial (সিরিয়াল অনুযায়ী আমার লেখা।) ✒ https://v.gd/SerialOfJunayedWritings

Support this user by bitcoin tipping - How to tip bitcoin?

Send bitcoin to this address

Comment (0)